নগদ একাউন্ট পিন লক খোলার নিয়ম

আমাদের সবার নিশ্চয় নগদ একাউন্ট আছে কেউ বা নগদ একাউন্ট দিয়ে মোবাইল রিচার্জ করে আবার কেউ বা নগদ দিয়ে টাকা লেনদেন করে।

আপনি যেকারনেই নগদ একাউন্ট করেন না কেন আপনি যদি নগদে পরপর তিনবার নগদ এর ভুল পিন দেন তাহলে আপনার নগদ কিছু সময়ের জন্য লক করে দেয়।

আপনার যদি জরুরি কোনো কাজে নগদ ব্যবহার করতে হয় তাহলে আপনি কয়েকটি নিয়ম ফলো করে অল্প সময়েই নগদের লক খোলতে পারেন।

নগদ একাউন্ট পিন লক খোলার নিয়ম

 

আমরা সবাই জানি নগদ সহ অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং তাদের গ্রাহকদের নিরাপত্তার জন্য তারা তিন বার ভুল পিন দিলে একাউন্ট ৩ ঘন্টার জন্য লক করে দেয় যাতে গ্রাহকের একাউন্ট নিরাপদে থাকে।

আপনিও যদি নগদে ভুল পিন দেওয়ার জন্য লক খেয়ে থাকেন তাহলে কীভাবে ৩ ঘন্টার ভেতরে লক খুলবেন সেটি দেখাবো।

 নগদ একাউন্ট লক মুক্ত রাখতে কী করতে হবেঃ

আপনি যদি নগদে পরপর ৩ বার ভুল পিন ব্যবহার করেন তাহলে আপনার একাউন্ট লক করে দিবে।

কিন্তু আপনি যদি কয়েকটি নিয়ম অনুসরন করেন তাহলে আপনি আপনার একাউন্ট লক হওয়া আটকাতে পারবেন।

আপনি যখন লেনদেন করবেন তখন আপনি খুব সতর্কতার সাথে পিন টাইপ করুন।

আপনি যদি একবার ভুল পিন টাইপ করেন ভুল হয় এবং দ্বিতীয় বার পিন টাইপ করার পর যদি ভুল হয় তাহলে আরেকবার ট্রাই করুন ৩ ঘন্টা বা তার আরো সময় পরে।

নগদ একাউন্ট লক হয় কেনঃ

এটি একটি গুরুত্বপূর্ন প্রশ্ন যেটি প্রায় অধিকাংশ মানুষ জানে না।

আপনি যদি আপনার নগদ একাউন্টের কোনো কাজে বারবার ভুল পিন দিয়ে কাজ করার চেষ্টা করেন তাহলে আপনার একাউন্ট লক হতে পারে।

আপনার একটি নগদ একাউন্ট একাধিক ফোনে লগইন করে একই সাথে কাজ করলে আপনার একাউন্ট লক হতে পারে।

আপনি যদি আপনার একাউন্টে কয়েক বছরের মধ্যে কোনো লেনদেন না করেন তাহলে আপনার একাউন্ট লক হতে পারে।

আপনি যদি নগদ থেকে টাকা উঠানোর সময় ক্যাশ আউট না করে সেন্ডমানি করেন বারবার তাহলেও নগদ একাউন্ট লক হতে পারে।

নগদ একাউন্ট লক খোলার নিয়মঃ

আপনার নগদ একাউন্ট যদি লক হয়ে যায় তাহলে আপনি তিন ঘন্টা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারেন।

তিন ঘন্টা পরও যদি একাউন্টের লক না খোলে তাহলে আপনি নগদ কাষ্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করতে পারেন।

নগদ কাষ্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করার মাধ্যমে আপনি নগদের একাউন্ট লক খুলতে পারবেন। আপনি নগদ কাষ্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করে আপনি আপনার নগদ একাউন্ট লক হওয়ার কারন বলবেন এবং তারা আপনার কাছে আপনার সম্পর্কিত কিছু তথ্য চাইবে।

তারা আপনার কাছে জানতে চাইবে নগদ একাউন্টের ভুল পিন দেওয়ার কারন এবং আপনার নাম, আপনার বাবা মায়ের নাম, আপনার আইডি কার্ডের নাম্বার এগুলে জানতে চাইবে।

আপনার দেওয়া তথ্যগুলো যদি সঠিক থাকে তাহলে আপনার একাউন্ট তারা আনলক করে দিবে এবং আপনি আপনার একাউন্টে নতুন করে লক দিতে পারবে।

 

বন্ধুরা এই ছিল নগদ একাউন্ট লক খোলা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা।আপনারা উপরের টিউটোরিয়াল মতো কাজ করে আপনি আপনার নগদ লক একাউন্ট আনলক করতে পারবেন।

উপরের নিয়ম মতো যদি আপনি কাজ করার পর যদি নগদ একাউন্ট লক না খোলে তাহলে আপনি কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.